মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬ আশ্বিন, ১৪২৮, ১৩ সফর, ১৪৪৩
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

মান্দার জোতবাজারে এক সংখ্যালঘু পরিবারের দোকানঘর দখলের পায়তারা

মান্দার জোতবাজারে এক সংখ্যালঘু পরিবারের দোকানঘর দখলের পায়তারা

নওগাঁ : নওগাঁর মান্দায় কতিপয় প্রভাবশালী এক সংখ্যালঘু পরিবারের দোকান ঘরের জমি দখলে নেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

দখলকৃত সম্পত্তি রক্ষায় মান্দা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী টগর চন্দ্র হাওলাদার। তিনি মান্দা উপজেলাস্থ নুরুল্যাবাদ ইউপি’র নুরুল্যাবাদ (বাবু পাড়া) গ্রামের মৃত গণেশ চন্দ্র হাওলাদার ছেলে।

জানা গেছে, নুরুল্যাবাদ মৌজার আর এস ১৪২৪ নং খতিয়ানের ৩৩৭৪,৩৩৭৫ এবং ৩৩৭৬ দাগের ৮২ শতক জমির মধ্যে দরখাস্তকারী টগর চন্দ্র হাওলাদারের পিতা মৃত গণেশ চন্দ্র হাওলাদারের বেচাকেনা অন্তে তার মৃত্যুর পর পৈত্রিকসূত্রে হিস্যা অনুযায়ী প্রাপ্ত (জোতবাজার চৌরাস্তার পূর্ব-দক্ষিণ পার্শ্বে রাস্তা সংলগ্ন) পুকুরের অংশসহ প্রায় ৭ শতক সম্পত্তির পুকুরের উত্তরাংশে মাঝখানে একটি টিনশেড দোকান ঘর নির্মাণ করেন । এরপর ৩ লক্ষ টাকা জামানতের মাধ্যমে জামাল উদ্দিন বাদশা নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছে তা ভাড়া দেন। দীর্ঘ ১০-১৫ বছর যাবৎ তিনি ওই দোকানঘরে মিষ্টান্ন এবং কনফেকশনারীর ব্যাবসা করে আসছেন বলে জানিয়েছেন। এমতাবস্থায় পূর্ব অংশের জমি ব্রজেন নামে তার এক মেঝো ভাইয়ের অংশ উজ্জল,অশিত এবং অশিমের কাছে বিক্রি করে দেন। আর পশ্চিম সাইটের জমিটি তার বড় ভাই গজেনের দখলে রয়েছে। সেখানেও একটি টিনশেডের দোকান ঘর রয়েছে। অথচ, গত ২৬ আগষ্ট সকালে একই এলাকার প্রভাবশালী ইসমাইলের ছেলে ইউসুফ আলী,ইয়াকুব আলী এবং ইমান আলী গংরা ওই দোকান ঘরের জমিতে বেআইনীভাবে মাটি ভরাটের মাধ্যমে তা জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করে।

 

বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই জাহিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এরপরেও তারা কোনো কর্ণপাত না করে বিভিন্নভাবে হুমকি এবং গালিগালাজ করা অব্যাহত রেখেছেন। আর এ জন্য জমি রক্ষাসহ ন্যায়বিচার পেতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন অসহায় ভূক্তভোগীরা। তারা বর্তমানে জীবনের নিরাপত্তাহীনতার শঙ্কা করছেন।

অভিযুক্ত ইউসুফ আলীসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মান্দা থানার এসআই জাহিদ বলেন , বিষয়টি সমাধানের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করা হচ্ছে।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বলেন , বিষয়টি সমাধানে বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যদি সমাধান না হয়, অভিযোগকারী তার প্রয়োজনে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।


error: Content is protected !!