[bangla_day], [english_date], [bangla_date], [hijri_date]
[bangla_day], [english_date]

সরকারি চাকরিজীবী ভাতিজার হাতে চাচা নির্যাতিত

ছবি: আহত আব্দুল কাদির মোল্যা

শরীয়তপুর : শরীয়তপুরের ডামুড্যায়  পূর্ব শত্রুতার জেরে আব্দুল কাদির মোল্যা (৬০) নামে এক বৃদ্ধার পা ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই বৃদ্ধা বর্তমানে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই বৃদ্ধার স্ত্রী জামিনা খাতুন বাদী হয়ে চারজনকে অভিযুক্ত করে শরীয়তপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় আজ সাইফুল, নাজমুল, রাজ্জাক মোল্যা ও নুর জাহান বেগমে গ্রেফতার ও থানায় মামলা রেকর্ড করার  নির্দেশ দেয় আদালত।

মামলা ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, ডামুড্যা উপজেলার পূর্ব ডামুড্যা ইউনিয়নের সম্ভুকাঠি এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আব্দুল কাদির মোল্যার সাথে তার ভাই আব্দুর রাজ্জাক মোল্যার সাথে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে গত ১০ মে ভোরে ফজরের নামাজ পড়ে আসার পথে তার ভাতিজা সেনাবাহিনীতে কর্মরত সাইফুল ইসলাম মোল্যা ও তার ভাই জাহাজে কর্মরত নাজমুল ইসলামের নেতৃত্বে আরও ২ জন ব্যক্তি দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কাদির মোল্যার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

হামলায় আব্দুল কাদির মোল্যার পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। একপর্যায়ে হামলাকারীরা হকিস্টিক দিয়ে আব্দুল কাদির মোল্যার বাম পায়ের মূল হাড় ভেঙে দ্বিখণ্ডিত করে দেয়। বাম পায়ের হাটু গুরুত্বর জখম করা হয়  পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পার্শ্ববর্তী ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা এলাকা থেকে গা ঢাকা দিয়েছেন। তাই তাদের কোন বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মামলার বাদী  জামিনা খাতুন জানান, আমার স্বামীকে যারা নির্যাতন করেছে আমি তাদের বিচার দাবি করছি। সাইফুল সেনাবাহিনীর চাকরে করে বলে, ওদের অনেক শক্তি। ওই রাতে বাড়িতে এসে সাইফুল আমার স্বামীকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করে, পা’ টি ভেঙ্গে ফেলে। আমি ওর বিচার চাই।

স্থানীয় রাকিব নামে একজন জানান, কাদির কাকা নামাজ পড়ে আসার পথে তাকে মারধর করতেছে, এমন কথা শুন দৌড়ে গিয়ে দেখি সাইফুল ভাই ও নাজমুল ভাই মারধর করতেছে। পরে তাকে আহত কাদির মোল্যাকে আমরা উদ্ধার করে ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাই।

এবিষয়ে ডামুড্যা থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুস সালাম বলেন, আদালত থেকে মামলার আদেশ কপি আজ থানা এসেছে। ‘মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার অভিযান চলছে।’


error: Content is protected !!