মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯, ২২ শাওয়াল, ১৪৪৩
মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২

চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা

ছবি: আহত আব্দুল আজিজ সরদার
শরীয়তপুর: শরীয়তপুর নড়িয়া উপজেলায় ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল আজিজ সরদারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ২ জন কে আটক করেছে নড়িয়া থানার পুলিশ।
সোমবার (২৭ ডিসেম্বার) শরীয়তপুর নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের পন্ডিতসার বাজারের পশ্চিম পাশে দুপুর ১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

দলীয় প্রতীক না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আজিজ সরদার।

আজিজ সরদার (৬০) ইউপির কলারগাঁও গ্রামের হাজী মহর আলী সরদার ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য। আগামী ৫ জানুয়ারি ওই ইউপির নির্বাচন হবে।

স্থানীয়রা জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদ্বন্দ্বী মো. নাসির উদ্দিন ফকিরের (মোটরসাইকেল) কর্মীসমর্থকরা চেয়ারম্যান প্রার্থী আজিজ সরদারের (চশমা) ওপর এই হামলা করে। আজিজ সরদার এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা করতে এক সমর্থকের মোটরসাইকেলের পেছনে বসে পন্ডিতসার বাজার দিয়ে যাচ্ছিলেন।

হঠাৎ মোটরসাইকেল থামিয়ে তার ওপর হামলা করা হয়। প্রথমে তাকে উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছিলো। অবস্থা গুরুত্বর হলে পরে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুল আজিজ সরদার অভিযোগ করে বলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নাছির ফকিরের লোকজন তাঁর নির্বাচনী প্রচারনা করার সময় তাকে রাস্তায় গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর করে। তিনি এ হামলার বিচার চেয়ে বলেন, আমি আপনাদের মাধ্যমে এর বিচার চাই, আমি বাঁচতে চাই। বিষয়টি নড়িয়া থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে অভিযুক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নাছির ফকির এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা দুই জনই সকাল ৯টার দিকে একই জানাজায় ছিলাম। আমি একদিকে প্রচারণায় চলে গেছি। পরে শুনলাম লালন শিকদার ও তার ভাই সেলিম সিকদারের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে এতে সাথে থাকা প্রার্থী আহত হয়েছে ।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনি সংকর কর বলেন, উক্ত ঘটনায় অভিযোগ প্রক্রিয়াধীন। এ বিষয় ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ২ জন কে আটক করা হয়েছে। অভিযোগটি তদন্তপূর্বক আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


error: Content is protected !!