বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৯, ২ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়

শরীয়তপুর : ”নিরাপদ মাছে ভরবো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” স্লোগানকে নিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে আজ শনিবার (২৩ জুলাই) দুপুরে সদর উপজেলা সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনদীপ ঘরাই, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রনব কুমার কর্মকার, সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা পলাশ হালদার প্রমূখ।

মতবিনিময় সভায় জেলা মৎস্য বিভাগ জানায়, ২০২১-২২ অর্থবছরে ইলিশসহ শরীয়তপুরে
মৎস্য উৎপাদন ২৭ হাজার ৫৬০ মেট্রিক টন। জেলায় চাহিদা রয়েছে ২৫ হাজার ৩১৬ মেট্রিক টন। উদ্বৃত্ত ২ হাজার ২৪৪ মেট্রিক টন। এরমধ্যে ইলিশের উৎপাদন ৫ হাজার ৪০০ মেট্রিক টন।

সভায় উপস্থিত বক্তারা জানান, মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হবার দুই বছর পরে কুমিল্লায় এক জনসভায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাছ হবে দ্বিতীয় বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী সম্পদ” এ মর্মে ঘোষনা দেন। আজ বাংলাদেশে তৈরী পোশাক শিল্পের পরই মৎস্য ও মৎস্যজাত দ্রব্য সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে। শুধু তাই নয় গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর আমিষের ৬০ শতাংশ যোগান দেয় মাছ।মৎস্যখাত বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম অগ্রাধিকারভুক্ত খাত। বৈশ্বিক মহামারী জনিত প্রতিকূল পরিবেশে দেশের বিপুল জনগোষ্ঠীর পুষ্টি চাহিদা পূরণ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ খাতে পরিকল্পিত উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রাকৃতিক জলাশয়ে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ, পরিবেশ বান্ধব ও উন্নত প্রযুক্তিনির্ভর কার্যক্রম গ্রহণের ফলে দেশ আজ মৎস্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী বিগত ১০ বছরের হিসেবে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে দ্বিতীয়। দেশের সাফল্য বিশ্ব পরিমণ্ডলেও স্বীকৃত। ইলিশ উৎপাদনকারী ১১ টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে প্রথম, অভ্যন্তরীণ মুক্ত জলাশয়ে মাছ আহরণে বাংলাদেশ তৃতীয়, মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে চতুর্থ এবং বদ্ধ জলাশয়ে মাছ উৎপাদনে পঞ্চম। তেলাপিয়া উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে চতুর্থ এবং এশিয়ার মধ্যে তৃতীয়। পাশাপাশি বিশ্বে সামুদ্রিক ও উপকূলীয় ক্রাস্টাশিয়া ও ফিনফিশ উৎপাদনে যথাক্রমে ৮ম ও ১২ তম স্থান অধিকার করেছে।
গত বছরও জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার “The state of World Fisheries and Aquaculture
2020” এর প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ মুক্ত জলাশয়ে মাছ আহরণে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।


error: Content is protected !!