জাতীয় লিগের ম্যাচ ফি বাড়ানোর প্রশ্নে নিরুত্তর সাকিব

ঢাকা: ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবির বেশিরভাগই মেনে নেওয়া হয়েছে, কিংবা মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বলেই নিজেদের সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। তুলে নিয়েছেন গত সোমবার ডাকা ধর্মঘটও। বোর্ড প্রধানের সঙ্গে সুর মিলিয়েই আলোচনা ফলপ্রসূ হওয়ার কথাও এসেছে তার মুখ থেকেই। কিন্তু যাদের নিয়ে আন্দোলন করলেন সেই স্থানীয় ক্রিকেটারদের বড় দাবি ছিল জাতীয় লিগের ম্যাচ ফি এক লাখ করা। তার উত্তরে এড়িয়ে গেলেন সাকিব।

টানা দুইদিনের অচলাবস্থা শেষে বুধবার রাতে বিসিবি কার্যালয়ে দুই পক্ষের আলোচনায় বেরিয়ে আসে সুরাহা। বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান জানান, তাদের এখতিয়ারে থাকা নয়টি দাবিই তারা মেনে নিচ্ছেন। আরও একটি আংশিক মানারও কথা হয়েছে। এখতিয়ারে না থাকা কোয়াবের কমিটির পদত্যাগের প্রক্রিয়া নিয়েও নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের কাছ থেকে মিলেছে ইতিবাচক বার্তা।

সাকিবদের সন্তুষ্ট হওয়ারই কথা। কিন্তু স্থানীয় ক্রিকেটারদের অনেকেরই মুখে দেখা গেল রাজ্যের হতাশা। আসলে বিসিবির সঙ্গে আলোচনায় জাতীয় লিগের ম্যাচ এক লাখ করার কোনও সিদ্ধান্তই যে হয়নি। অর্থাৎ সাকিবেরই উচ্চারণ করা ৪ নম্বর দাবিই মানা হয়নি।

আন্দোলন প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পর সাকিবকের কাছে তাই সরাসরি প্রশ্ন গেল, জাতীয় লিগের ম্যাচ ফি এক লাখ করার দাবি ছিল। সেটা এখন কত টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে? উত্তরে এই তারকা ক্রিকেটার বলেন- ‘আসলে বলেছিলাম প্রশ্ন করলেই উত্তর দেওয়া মুশকিল।’ এরপরই উঠে যান তিনি।

যৌথ সংবাদ সম্মেলনে অচলাবস্থা অবসানের ঘোষণার পর বেরিয়ে যাওয়া স্থানীয় ক্রিকেটারদের মুখে তৃপ্তি পাওয়া গেল না। অনেকেরই মুখে আঁধার। তাদের কয়েকজনের কাছ থেকেই শোনা গেল ম্যাচ ফি’র ব্যাপারে স্পষ্ট কোনও আলোচনা হয়নি, হয়ত অল্প কিছু বাড়তে পারে। তবে সেটা তাদের দেওয়া দাবির কাছাকাছিও নয়।