আঘাত হানতে শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল, নিহত ১

ঢাকা: শক্তি বাড়িয়ে এগিয়ে এসেছে সুপার সাইক্লোন ‘বুলবুল’। আবহাওয়ার সকল পূর্বাভাসকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে রীতিমত বেপরোয়া আঘাত হানতে শুরু করেছে।

এদিকে, বুলবুলের প্রভাবে কলকাতার বাবুঘাটসহ রাজ্যটির দক্ষিণবঙ্গের একাধিক ফেরি পারাপার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজও। মৎসজীবীদের সমুদ্রে মাছ ধরার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের একজনের প্রাণহানি ঘটেছে। দক্ষিণ কলকাতার বালিগঞ্জে গাছ উপড়ে পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। নিহত ব্যক্তির নাম সোহেল শেখ (২৫)। জানা গেছে, বালিগঞ্জের একটি ক্লাবে রান্নার কাজ করতেন বিহারের বাসিন্দা সোহেল। ট্যাংরার বাসা থেকে কাজে যোগ দেওয়ার জন্য দুপুরে ওই ক্লাবে যাচ্ছিলেন। ক্লাবে প্রবেশের মুখেই বিপত্তি ঘটে। একটি গাছ ভেঙে পড়ে তার মাথায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় তৈরি রাজ্য প্রশাসনও। রাজ্য সরকারের সচিবালয় নবান্নে খোলা হয়েছে। সকাল থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যনার্জি পরিস্থিতির তদারকি করছেন এবং জেলা প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিচ্ছেন। উপকূলবর্তী এলাকাগুলোতে জারি করা হয়েছে চূড়ান্ত সতর্কতা। পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ উপকূলবর্তী থেকে ইতিমধ্যেই প্রায় ৫৯ হাজার মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বুলবুল পরবর্তী বিপর্যয়কে এড়াতে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে ভারতীয় কোস্ট গার্ড সদস্যদের। পারাদ্বীপ, ধমরা, সাগরদ্বীপ উপকূল থেকে সমস্ত জাহাজকে নিরাপদ দূরতে সরিয়ে রাখা হয়েছে।

টুইট করে মমতা জানান, ‘ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বাংলার ওপর দিয়ে অতিবাহিত করবে। আমাদের রাজ্য প্রশাসন চব্বিশ ঘণ্টা নজরদারি চালাচ্ছে। যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমরা সব রকমের পদক্ষেপ নিয়েছি। বিশেষ কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে এবং জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনীকে মোতায়েন করা হয়েছে।’ সেই সাথে মানুষকে অযথা আতঙ্কিত না হয়ে মানুষকে ত্রাণ ও উদ্ধারকাজে প্রশাসনকে সহায়তা করার আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে কলকাতা নেতাজী সুভাষ চন্দ্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরেও পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে আগামীকাল রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টা এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

ইন্ডিয়ান এয়ারপোর্ট অথরিটির তরফে এক বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কার কারণে ৯ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১০ নভেম্বর সকাল ৬টা পর্যন্ত বিমান পরিষেবা বন্ধ থাকবে।’