৩১ জানুয়ারির মধ্যে বকেয়া পরিশোধের আশ্বাস এশিয়ান টিভির

ঢাকা: এশিয়ান টেলিভিশনের সাবেক কর্মীদের সব বকেয়া পাওনা চলতি মাসের ৩১ তারিখের মধ্যে পরিশোধের আশ্বাস দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ। আজ শুক্রবার চ্যানেলটির নিকেতনের অফিসে আন্দোলনকারী সাবেক কর্মীদের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকে এ আশ্বাস দেন তিনি।

সকাল এগারটার দিকে বৈঠকটি শুরু হয়। এক ঘণ্টার বেশি এই আলোচনায় এশিয়ানের চেয়ারম্যান ছাড়াও প্রধান উপদেষ্টা হাসান জাহাঙ্গীর ও মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ শেখ কাদীর অংশ নেন। আন্দোলনকারীদের নেতৃত্ব দেন সাবেক চিফ নিউজ এডিটর সেলিম খান। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সিনিয়র নিউজরুম এডিটর বিশ্বজিৎ দত্ত ভৌমিক, সাবেক ভিডিও এডিটর আব্দুল আলীম, মেহেদী হাসান ও সাবেক ক্যামেরাম্যান বিমল সরকার সবুজ।

সেলিম খান, বিশ্বজিৎ দত্ত ভৌমিক ও বিমল সরকার সবুজ জানান, আগামীকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এশিয়ান টেলিভিশনের বিরুদ্ধে তাদের মানববন্ধনের কথা ছিল। এরই পরিপেক্ষিতে চ্যানেলটির মালিকপক্ষ তাদের সঙ্গে বসার আগ্রহ প্রকাশ করে।

বিশ্বজিৎ দত্ত ভৌমিক জানান, ‘বৈঠকে বকেয়া পাওনার ন্যায্যতা তুলে ধরেন সেলিম খান। পাওনা পরিশোধে চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদকে আন্তরিক মনে হয়েছে। তিনি আমাদের বলেন, চলতি মাসের ২৪ তারিখ তাদের বোর্ড মিটিং রয়েছে। সেখানে টাকা পরিশোধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। চেয়ারম্যান সবাইকে আশ্বস্ত করেছেন যে, ৩১ জানুয়ারির আগে সব পাওনা পরিশোধ করা হবে। তাই আমরা শনিবারের মানববন্ধন স্থগিত করেছি।’

বৈঠকের বিষয়ে জানতে এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদকে তার মোবাইল ফোনে কয়েকবার চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

জানা গেছে, এশিয়ান টেলিভিশনের সাবেক অন্তত ৬০ জন কর্মী বকেয়া পাওনা আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলন করছেন। তাদের মোট পাওনা ৫০ লাখ টাকার বেশি। বৃহস্পতিবার পাওনাদারদের একটি তালিকা লিফলেট আকারে জাতীয় প্রেসক্লাব ও ডিআরইউ’তে বিতরণ করেন সাবেক কর্মীরা। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের হাতেও একটি লিফলেট তুলে দিয়ে তাঁকে বিষয়টি অবহিত করেন তারা।