এশিয়ানের ওয়াদা ভঙ্গ, ফের আন্দোলনে সাবেক কর্মীরা

312

ঢাকা: কয়েকদফা আশ্বাসের পর এশিয়ান টিভির কর্তৃপক্ষ বকেয়া পাওনাদি বুঝিয়ে না দেওয়ায়, আবার রাজপথে আন্দোলন শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক কর্মীরা। সোমবার সকাল ১১টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে তারা। এরই অংশ হিসেবে আজ প্রেসক্লাব, ডিআরইউ ও বিভিন্ন জায়গায় লিফলেট বিতরণ করেছে তারা। পাশাপাশি বিভিন্ন যানবাহনেও পাওনা টাকার তালিকার এই লিফলেট সাঁটানো হয়েছে।

এশিয়ান টিভির সাবেক সিনিয়র নিউজরুম এডিটর বিশ্বজিৎ দত্ত ভৌমিক বলেন, ‘এশিয়ানের কর্তৃপক্ষ আমাদের সঙ্গে বকেয়া পাওনার বিষয়ে কয়েক দফা বৈঠক করে এবং চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে টাকা পরিশোধের আশ্বাস দেয়। কিন্তু তারা প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি। এটি ছিল মূলত তাদের সময়ক্ষেপণের কৌশল। তাই আন্দোলনের মাধ্যমেই দাবি আদায়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।’

চ্যানেলটির সাবেক সিনিয়র নিউজ এডিটর জাকির হোসেন বলেন, ‘আলোচনার মাধ্যমে এশিয়ান আমাদের পাওনাদি বুঝিয়ে দেবে না, এটা আমরা বুঝতে পেরেছি। তাই আন্দোলন ছাড়া আমাদের আর কোনো পথ খোলা নেই।’

কয়েকদিন আগে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকে বকেয়া পাওনাদির বিষয়টি জানানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন সাবেক এই সিনিয়র নিউজ এডিটর।

সাবেক ভিডিও এডিটর আব্দুল আলীম জানান, যখনই আন্দোলন শুরু হয়, তখনই এশিয়ানের মালিকপক্ষ আলোচনার নামে নাটক করে এবং এটি কয়েকবারই হয়েছে। এ জন্য তাদের সঙ্গে পাওনাদাররা আর বসতে রাজি নয়। সামনে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে টাকার তালিকাসহ স্মারকলিপি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

বিষয়টি নিয়ে এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদকে মোবাইলে কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এশিয়ান টিভির কাছে সাবেক অন্তত ৬০ জন কর্মীর বকেয়া পাওনা রয়েছে বলে জানা গেছে এবং টাকার পরিমাণ প্রায় ৬০ লাখ। বিভিন্ন জায়গায় বিতরণ করা লিফলেট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।