মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ১১ কার্তিক, ১৪২৭, ৯ রবিউল আউয়াল, ১৪৪২
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০

গোপালগঞ্জে ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীর ডাক্তরী পরীক্ষা সম্পন্ন; এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি

গোপালগঞ্জে ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীর ডাক্তরী পরীক্ষা সম্পন্ন; এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি
গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আজ মঙ্গলবার গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।
গত শনিবার (৩ অক্টোবর) কোটালীপাড়া উপজেলার ধারাবাশাইল গ্রামের ইব্রাহিম হাওলাদারের মাছের ঘের পাড়ের একটি টং-ঘরে ওই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও করে রাখা হয়। আবার যখন ডাকবে তখন না আসলে ও ধর্ষণের কথা কাউকে বললে ধারণকৃত ভিডিও ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেয় ওই ধর্ষক ও তার বন্ধু।
এই ঘেরটির মালিক ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণকারী ও ধর্ষণে সহায়তাকারী মাসুদ হাওলাদারের পিতা ইব্রাহিম হাওলাদার।
এ ঘটনায় গতকাল সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে ওই স্কুল ছাত্রীর পিতা কোটালীপাড়া উপজেলার পিনজুরী ইউনিয়নের কাশাতলী গ্রামের ডালিম দাঁড়িয়া বাদী হয়ে কোটালীপাড়া থানায় মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ এনে মামলা করেছেন (মামলা নং-০৪)।
এদিকে, এ ঘটনায় এখন পযর্ন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে, পুলিশের পাশাপাশি অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে কাজ করছে বলে জানাগেছে।
মামলায় পূর্ণবতী গ্রামের মহাসিন উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে ধর্ষক আলী হোসেন হাওলাদার ও একই গ্রামের ইব্রাহিম হাওলাদারের ছেলে ধর্ষনে সাহায্যকারী মাসুদ হাওলাদারকে আসামী করা হয়েছে।
গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে সহকারি পরিচালক অসিত মল্লিক জানিয়েছেন, ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।
কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ লুৎফর রহমান জানিয়েছেন, গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু এখনও কোন আসামীকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।