বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি, ১৪৪২
বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০

শরীয়তপুরে আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর র‌্যালীতে ইকবাল হোসেন অপু এমপি

শরীয়তপুরে আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর র‌্যালীতে ইকবাল হোসেন অপু এমপি

শরীয়তপুর:শরীয়তপুর জেলায় আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। বুধবার (১১ নভেম্বর) সকাল থেকে শরীয়তপুর জেলা, সদর উপজেলা-পৌর যুবলীগ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিলো জাতীয় দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, ৪৮ পাউন্ড কেক কাটা, র‌্যালী ও সমাবেশ।

বেলা ১১ টার দিকে জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ শেষে ৪৮ পাউন্ড কেক কেটে প্রধান প্রধান সড়ক অতিক্রম করে র‌্যালী বের হয়ে কোর্ট চত্বরে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

এছাড়াও মসজিদে মসজিদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সব শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে যুবলীগের নেতাকর্মীরা পৃথক পৃথক কর্মসূচি পালন করেছে।

কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আ’লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ইকবাল হোসেন অপু।

জেলা যুবলীগের সভাপতি এম এম জাহাঙ্গীর মৃধার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুহুন মাদবরের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান উজ্জল, সদস্য এডভোকেট জহিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেন, পৌরসভা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন খান।

এছাড়া সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন দিপু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক হোসেন সরদার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফাহাদ হোসেন তপু মিয়া, জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মহসিন মাদবর ও যুগ্ম-আহবায়ক রাশেদুজ্জামানসহ জেলা, উপজেলা, পৌর ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও সহযোগী অঙ্গ সংগঠণের প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে ইকবাল হোসেন অপু এমপি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে শেখ ফজলুল হক মণির নেতৃত্বে ১৯৭২ সালের ১১ নভেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক যুব কনভেশনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠা লাভ করে সংগঠনটি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আদলে অসা¤প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও শোষণমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে যুবসমাজকে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্য নিয়েই প্রতিষ্ঠিত হয় এই সংগঠন। গত চার দশকের বেশি সময় ধরে দীর্ঘ লড়াই-সংগ্রাম ও হাজারো নেতাকর্মীর আত্মত্যাগের মাধ্যমে যুবলীগ আজ দেশের সর্ববৃহৎ যুব সংগঠনে পরিণত হয়েছে। এ সংগঠণে কোন সন্ত্রাস, চাদাবাজ ও মাদক ব্যাবসায়ী যেন স্থান না পায়, সেদিকে সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে যুবলীগকে এগিয়ে আসতে হবে।