সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১১ মাঘ, ১৪২৭, ১১ জমাদিউস সানি, ১৪৪২
সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১

শরীয়তপুরে প্রতিবন্ধীর জমি দখলের চেষ্টা : উর্ধ্বতনের হস্তক্ষেপ কামনা

শরীয়তপুরে প্রতিবন্ধীর জমি দখলের চেষ্টা : উর্ধ্বতনের হস্তক্ষেপ কামনা

শরীয়তপুর : শরীয়তপুরে এক প্রতিবন্ধী জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পালং মডেল থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। কিন্তু দখলদারদের হামকি হুমকি অব্যহত রাখায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন পিতাহীন প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারী। উর্ধ্বতনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এদিকে দখলদাররা প্রভাবশালী হওয়ায় ও স্থানীয় একটি মহলের চাপে অসহায় হয়ে পড়েছে প্রতিবন্ধীর পরিবারটি। এঅবস্থায় বসত ভিটার রক্ষায় প্রশাসনের উর্ধ্বতনদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারী।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, শরীয়তপুর সদর উপজেলার ধানুকা গ্রামের প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারীর পরিবারের বসবাস। পিতৃহীন পরিবারে অভাব অনটনের সংসারে প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারীর। বেঁচে থাকার মতো অবলম্বন হিসেবে বসত ভিটাটুকু। বসত বাড়ি নির্মাণ করার জন্য ২০১৪ ইং সালে বসত ভিটার পাশে ২০৪ নং দাগ হতে ০৬ শতাংশ জমি মোঃ কাদের বেপারী বিক্রি করেন আঃ হাই সিকদারের কাছে। আব্দুল হাই সিকদার কিছু দিন পর প্রতিবন্ধী সহজ সরল মোঃ কাদের বেপারী বুঝায় এই দাগের জমি টিকবেনা তার সরল বিশ^াসে পূণরায় তার সাথে সাব রেজিস্ট্রার অফিসে গেলে তার কাছে থেকে ২০৪ নং দাগ থেকে আরও ১০ শতাংশ জমি দলিল করে নিয়ে যায় আঃ হাই সিকদাররা। পরে স্থানীয়দের ব্যাপরটা জানালে তারা তাকে জানায় তার কাছ থেকে সর্বমোট ১৬ শতাংশ জমি দলিল করে নিয়ে যায়। এর পর থেকে দিশেহারা হয়ে যায় প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারী। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার গ্রাম্য সালিশ বৈঠক হয়েছে কোন সমাধান পাননি তিনি। আর এ দিকে ক্রয় সূত্রে মালিকানা দাবি করে জমি দখলের চেষ্টা করেন স্থানীয় প্রভাবশালী দখলদাররা। বাধা দিতে গেলে মারধরে শিকার হন প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারীর পরিবার। বিভিন্ন সময় প্রতিবন্ধী কাদের বেপারীর বসত বাড়ি গেইটে তালাবদ্ধ করে রাখে, বাড়িঘর ভাংচুর, বাড়ির ছাদে থাকা গাছ পালা কেটে নষ্ট করে দিয়েছে এবং বাড়িতে থাকা বিদ্যুৎতের সংযোগ কেটে বিচ্চেদ ও পানির লাইন নষ্ট করে দিয়েছে।
এব্যাপারে অভিযোগকারি প্রতিবন্ধী মোঃ কাদের বেপারী কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি প্রতিবন্ধী হওয়ায় তার সরল বিশ^াসে আমার কাছ ১০ শতাংশ জমি বেশি দলিল করে নিয়ে যায় প্রভাবশালী আব্দুল হাই সিকদাররা। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় নানাভাবে হয়রানি করে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে তার পরিবারকে বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছেন। তারা বিভিন্ন সময় আমার বাড়িতে আমাকেসহ আমার পরিবারের লোকজনকে মারধর করেছে। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় স্থানীয়দের কাছ থেকে বিচার চেয়েও বিচার পাইনি।
জমি দখলের অভিযোগে অভিযুক্ত আব্দুল হাই শিকদার, মোঃ শাহে আলম শিকদার, মোসাঃ মেবিন বেগম. মোসাঃ রিমা বেগম, মোঃ সাগর সিকদারদের বাড়িতে গেলে পাওয়া যায়নি।
পালং থানার ওসি মোঃ আসলাম উদ্দিন বলেন, এব্যাপারে আমি অবগত নেই, থানায় যদি অভিযোগ হয়ে থাকে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।