রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১, ২২ ফাল্গুন, ১৪২৭, ২২ রজব, ১৪৪২
রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

সামন্তসার ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন করতে চান রুবেল

সামন্তসার ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন করতে চান রুবেল

শরীয়তপুর: আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষনা দিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রয়াত জাতীয় নেতা সাবেক পানি সম্পদমন্ত্রী আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাকের একান্ত সহচর সামন্তসার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মরহুম বীর মুক্তিযুদ্ধো জয়নাল আবেদীনের পুত্র বিশিষ্ট্য সমাজ সেবক মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের গোসাইরহাট উপজেলার সভাপতি মোঃ তৌহিদ আহমেদ রুবেল রাড়ী সামন্তসার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশি ব্যক্তি ও পারিবারিক ইমেজ, দলের নিবেদিত দীর্ঘদিনের একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে তার বেশ পরিচিতি রয়েছে। তাই দল থেকে তাকে মনোনয়ন দিলে সহজে জয় পাবার আশা করছেন নবীন-প্রবীণ ভোটাররা।

জানা গেছে,তার রাজনৈতিক কর্মকান্ড ও তৎপরতার মধ্যে দিয়ে ছাত্র সমাজে নিজের আসন পাকাপোক্ত করে নিয়েছন। তার রাজনৈতিক মেধা, প্রজ্ঞা ও নিরলস শ্রমের মাধ্যমে তৃণমূলের মধ্যে তিনি একটি শক্ত ভীত গড়ে সক্ষম হয়েছেন মোঃ তৌহিদ আহমেদ রুবেল রাড়ী, জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে জনগণের সেবামূলক কর্মকান্ডসহ নানা সমাজ-সংস্কারমূলক কর্মকান্ড করেছেন যা ইতিহাস সাক্ষ্য দেয়। অনুরূপভাবে জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসেবে জনগণের সেবাসহ বহু সামাজিক, শিক্ষা ও ধর্মীয় কর্মকান্ডে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেন। জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিত্বের সাথে তার সম্পর্ক বিদ্যমান। তাই সামন্তসার ইউনিয়ন বাসীর হৃদয়ের মণিকোঠায় উচ্চাসনে স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছেন তিনি ছাত্র-রাজনীতির মাধ্যমে রাজনীতিতে তার হাতেখড়ি। রাজনীতির প্রতিটি শাখায় তার সরব উপস্থিতি সকলের দৃষ্টি কেড়েছে। এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে এবং মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে লালন করে যুবসমাজকে সুসংগঠিত করতে তার প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। ইতিমধ্যে সে যুব সমাজের মধ্যে তার অবস্থান সুদৃঢ় করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় রাজনীতিতে তার ভূমিকা রাখতে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কর্মসূচিকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

তৌহিদ আহমেদ রুবেল রাড়ী আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশী। ইতোমধ্যে তিনি ভোটের মাঠে নেমে পড়েছেন। গণসংযোগসহ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। ভোটাররা রাজনীতির মাঠের পরীক্ষিত তরুণ সুদর্শন নেতা মোঃ তৌহিদ আহমেদ রুবেল রাড়ী কে পেয়ে ব্যাপক সাড়া দিচ্ছেন। তিনি যেখানে যাচ্ছেন সেখানেই মানুষের সবর উপস্থিতি জানান দিচ্ছে।রাজনীতিকে মানবসেবার ব্রত হিসেবে মনে করেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ সমাজ সেবক  তিনি মনে করেন, সাধারণ মানুষের সেবার জন্যই রাজনীতি।  মানুষের পারিবারিক ও সামাজিকসহ নানা সমস্যা সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এই প্রচেষ্টাকে আরো প্রসারিত করতে তিনি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

তিনি ১৯৯৩  সালে সামন্তসার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক হিসেবে রাজনীতি শুরু করে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত সাংগঠনিকের দায়িত্ব পালন করেন । ১৯৯৫-১৯৯৮ ইং সাল পর্যন্ত সামন্তসার ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।২০০০-২০০৩ সাল পর্যন্ত সামন্তসার ইউনিয়নের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৪-২০২০ সাল পর্যন্ত সামন্তসার ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সাল থেকে ২০২০ সাল ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড শরীয়তপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক।

তার পিতা প্রয়াত জাতীয় নেতা আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাকের একান্ত সহচর মরহুম বীর মুক্তিযুদ্ধো জয়নাল আবেদীনকে ১৯৯০ সালে উপজেলা নির্বাচনকালে আওয়ামীগ সমর্থিত প্রার্থী জসিম উদ্দিন দেওয়ানের পক্ষে নির্বাচন করায় জামাত বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ডা. কামাল এর নেতৃত্বে তার বাবাকে নৃশংসভাবে গলা কেটে হত্যা করা। তিনি ছোট থাকায় বিএনপি ক্ষমতায় থাকায় ধারে ধারে বাবা হত্যার বিচার চেয়েও কোথাও ন্যায় বিচার পায়নি রুবেল।

দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ তৌহিদ আহমেদ রুবেল রাড়ী বলেন, আমার নিজস্ব কোন চাওয়া-পাওয়া নেই। মানুষের একজন সেবক হয়ে কাজ করতে চাই। মানব সেবাই পরম ধর্ম আর আমি সেটা করতেই ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতিতে যুক্ত হয়েছি এবং মৃত্যুর আগ পর্যন্ত থাকবো ইনশাআল্লাহ। তিনি আরো বলেন, প্রয়াত জাতীয় নেতা পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাকের অনুপ্রেরণায় ‘আমি আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। প্রয়াত জাতীয় নেতা আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাকের সুযোগ্য পুত্র শরীয়তপুর ৩ আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য হাজী নাহিম রাজ্জাক এমপির নির্দেশে মানুষের ভালবাসা নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কমিটিতে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি। যখন থেকে আওয়ামীগ রাজনীতির সাথে জড়িত হয়েছি, তখন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করেছি।’ জীবনের দীর্ঘপথে অনেক বাধা-বিপত্তি, দুঃসময় ও কষ্ট সহ্য করেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিন্দুমাত্র পিছপা হয়নি। দল এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের বাহিরে যাইনি। এখন সময় এসেছে দল থেকে মূল্যায়িত হওয়ার। গত নির্বাচনে আমি দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম, দলের সিদ্ধান্ত মেনে আমি নির্বাচনে যায়নি। সব কিছু বিবেচনায় আমি নিশ্চয়ই মনোনয়ন পাওয়ার যোগ্য দাবিদার। আশা করি প্রিয়নেত্রী শেখ হাসিনা ও প্রিয় নেতা হাজী নাহিম রাজ্জাক এমপি এবং দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ আমাকে মূল্যায়ন করে মনোনয়ন দিয়ে সামন্তসার ইউনিয়ন বাসির সুখে দুঃখে বিপদে-আপদে পাশে থাকার সুযোগ করে দিবেন।


error: Content is protected !!