রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১, ২২ ফাল্গুন, ১৪২৭, ২২ রজব, ১৪৪২
রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

মাদারীপুর রাজৈরে চেয়ারম্যানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যানার টানিয়ে প্রতিবাদ

মাদারীপুর রাজৈরে চেয়ারম্যানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যানার টানিয়ে প্রতিবাদ

মাদারীপুর: মাদারীপুর রাজৈর উপজেলার আমগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমান টিপু’র বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রদিবাদ জানিয়েছেন আমগ্রাম ইউনিয়নের মেম্বাররা। এ উদ্দেশ্যে উপজেলার আমগ্রাম ইউনিয়নের কৃষ্ণের মোড় বাজারে টানানো প্রতিবাদী ব্যানারটি ছিড়ে ফেলা হয়।

অভিযোগ দেশীয় অস্ত্র দেখিয়ে হুমকি-ধামকি দিয়ে ব্যানারটি ছিড়ে নিয়ে গেছে চেয়ারম্যানের ভাই রনি বেপারী।

এ ঘটনায় চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে রাজৈর থানায় একটি জিডি করা হয়

মেম্বার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মেম্বারদের সই ও সিল নকল’সহ চেয়ারম্যানের সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির বিচারের দাবী জানিয়ে প্রতিটি ওয়ার্ডে ব্যানার টানানো হয়। এসময় খবর পেয়ে রাজৈর উপজেলার আমগ্রাম ইউনিয়নের কৃষ্ণের মোড় বাজারে টানানো নয়জন মেম্বারের ছবি সম্বিলিত ব্যানারটি ছিড়ে ফেলে এবং মেম্বারদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি ও অশালিন ভাষায় গালাগাল করে চেয়ারম্যানের ভাই রনি বেপারী ও তার সন্ত্রাসীদল।
পরে আমগ্রাম-পাখুল্লা সড়কে একা পেয়ে তার স্বামী কৃষ্ণ চন্দ্র রায়ের উপর হমলা চালানোর চেষ্টা করলে তিনি পালিয়ে যান। এতে উত্তেজনা চরম আকার ধারন করলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
এ ঘটনায় রবিবার রাতে মেম্বারদের পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান ও তার ভাইসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে অঙ্ঘাতনামা আরো ৮-১০ জনের বিরুদ্ধে রাজৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ১নং ওয়ার্ড মেম্বার বশার।

৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার রমা রাণী রায় সাংবাদিকদের জানান, আমরা চেয়ারম্যানের বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে এলাকায় ব্যানার টানালে রনি, তাপস’সহ চেয়ারম্যানের সমর্থকরা ব্যানারটি ছিড়ে নিয়ে যায় এবং আমাদের হুমকি ধামকি দেয়।

ওই মহিলা মেম্বারের স্বামী কৃষ্ণ চন্দ্র রায় বলেন রাস্তা বন্ধ করে আমাকে মারধরের প্রস্তুতি নিচ্ছে জানতে পেরে গ্রামের মধ্যে দিয়ে পালিয়ে আসি এবং সকলকে জানাই।

জিডির বাদি ১নং ওয়ার্ড মেম্বার বশার বলেন, প্রতিবাদ করায় আমাদের ব্যানার ছিড়ে নিয়ে গেছে। এখন যেকোন মূহূর্তে আমাদের উপর হামলা হতে পারে। তাই থানায় অভিযোগ দিয়েছি।

এ ব্যাপারে আমগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমান টিপু বলেন, আমার বিরুদ্ধে কতিপয় মেম্বার অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগের কোন তদন্ত হওয়ার আগেই তারা আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যমুলক ভাবে এলাকায় ব্যানার টানিয়েছে।

রাজৈর থানার ওসি মো. শেখ সাদিক জানান, আমগ্রাম ইউনিয়নের কৃষ্ণ মোড়ে ব্যানার টানানোকে কেন্দ্র করে চেয়াম্যানের লোকজন ও মেম্বারদের মাঝে সাময়িক উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেক্ষ্য, এর আগে উপজেলার টেকেরহাট নজরুল ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে চেয়ারম্যান টিপুর অনিয়ম ও দুর্নীতিগুলো তুলে ধরেন ৯ জন ইউপি সদস্য। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা জানিয়ে মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ও রাজৈর ইউএনও বরাবরও অভিযোগ করেন তারা।


error: Content is protected !!