বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৯ বৈশাখ, ১৪২৮, ৯ রমজান, ১৪৪২
বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১

শরীয়তপুরে ৪ ডাকাত গ্রেফতার, ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধার

গ্রেফতার চার ডাকাত

শরীয়তপুর : শরীয়তপুর জাজিরায় ডিবি পুলিশের একটি দল গতকাল রাত ১.৩০ মিনিটে জাজিরা উপজেলার বিকেনগর আনন্দ বাজার এলাকা থেকে কালাচান সরদার (৩৫) ও বাবুল মাদরব (৪৫) গ্রেফতার করা হয়। তাহাদের দেওয়া তথ্য মতে বিকে নগর আনন্দ বাজার থেকে বিষ্ণু বাইন এবং বাহাদুর ফকির (৩৮) নামে ৪ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে। উভয় ডাকাত সদস্য জাজিরা উপজেলার।

 

পুলিশ ও মামলা সুত্রে জানায়ায়, গত ২০/০২/২০২১ খ্রিঃ তারিখ রাত অনুমান ০১.৩০ ঘটিকার সময় জাজিরা থানাধীন বিকে নগর টুমচর সরদার কান্দি গ্রামের সাহেব আলী সরদারের বাড়ীতে অজ্ঞাতনামা ১৪/১৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ধারালো দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র সহকারে প্রবেশ করে বিল্ডিং এর লোহারগেট ও কাঠের দরজা ভেঙ্গে বিল্ডিং প্রবেশ করে সাহেব আলী সরদার ও তাহার পরিবারের লোকদেরকে মারপিট করে ও দেশীয় অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে ০৭ ভরি স্বর্নালংকার নগদ ৭০,০০০টাকা ০৩ টি মোবাইল, ০১ টি ঘড়ি, ০১ টি টর্চ লাইট ডাকাতি করে নিয়ে যায়। যাহা নগদ টাকা সহ সর্বমোট মূল্য ৭,৫৪,০০০ টাকা। উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে সাহেব আলী সরদার বাদী হয়ে জাজিরা থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করিলে জাজিরা থানার মামলা নং-১৪, ২১/০২/২০২১ খ্রিঃ ধারা-৩৯৫/৩৯৭ পেনাল কোড রুজু করে তদন্তভার ডিবি শরীয়তপুরের উপর দেয়া হয়। অজ্ঞাতনামা ডাকাতদের গ্রেফতার ও ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধারের লক্ষ্যে মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই শেখ আশরাফুল সহ অফিসার ইনচার্জ ডিবি সাইফুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল) এস, এম মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে চেষ্টা অব্যহত থাকে। অব্যহত চেষ্টার ফলে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল) এস, এম মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে অফিসার ইনচার্জ ডিবি সাইফুল আলম, তদন্তকারী অফিসার এসআই শেখ আশরাফুল সহ ডিবির অফিসার ফোর্সের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে ১৮/০৩/২০২১ ইং তারিখ বিকে নগর আনন্দ বাজার থেকে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত আসামী কালাচান সরদার (৩৫), পিতা-ইদ্রিস সরদার, ও বাবুল মাদরব (৪৫), পিতা-মৃত ওহাব মাদবর কে গ্রেফতার করা হয়। তাহাদের দেওয়া তথ্য মতে বিকে নগর আনন্দ বাজার থেকে বিষ্ণু বাইন (৩৪) পিতা-বিরেশ^র বাইন, কে ডাকাতি হওয়া স্বর্নালংকার ক্রয়ের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় এবং মামলার বাদী ও তাহার পরিবারের সনাক্ত করা মতে বিষ্ণু বাইন এর নিকট থেকে ডাকাতি হওয়া ০১ টি স্বর্নের চেইন, ০২ টি আংটি, ০১ জোড়া কানের দুল উদ্ধার করা হয় এবং আসামীদের নিকট থেকে স্বর্ন বিক্রির নগদ ২৮,০০০/- টাকা উদ্ধার করা হয় এবং ডাকাতির ঘটনায় জড়িত বাহাদুর ফকির (৩৮) পিতা-জনু ফকিরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ০৪ জন আসামীর মধ্যে আসামী কালাচান সরদার (৩৫) ও বাহাদুর ফকির (৩৮) দ্বয় বিজ্ঞ আদালতে নিজেরা ঘটনার সাথে জড়িত মর্মে ফৌঃকাঃবি ১৬৪ ধারা মোতাবেক দোষ স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। আসামী বাবুল মাদবর (৪৫) ও বিষ্ণু বাইন দ্বয়ের বিরুদ্ধে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদনসহ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়।

 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল) এস, এম মিজানুর রহমান জানান, মামলা হওয়ার পর থেকে প্রযুক্তির সহয়তায় তাঁর নেতৃতে ডিবি পুলিশের একটি দল ৪ ডাকাত সদস্যদের আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। তারা আন্তজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। ইদানীং তাঁদের নেতৃত্বে জাজিরাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় বেশ কয়েকটি ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ঘটনার সাথে অবশিষ্ট ডাকাতদের গ্রেফতার এবং লুন্ঠিত মালামাল ও ঘটনার ব্যবহৃত অস্ত্রসস্ত্র উদ্ধারের অভিযান অব্যহত থাকবে।


error: Content is protected !!